বিজ্ঞপ্তি:
আমাদের ওয়েবসাইটে আপনাকে স্বাগতম
সংবাদ শিরোনাম:
গলাচিপায় পাবলিক পরীক্ষা কেন্দ্রসমূহে প্লাষ্টিকের বেঞ্চ বিতরণ গলাচিপা উপজেলা আওয়ামী লীগের নবগঠিত কমিটির পরিচিতি সভা লেবুখালী সেতুটি শহীদ আলাউদ্দিন সেতু নাম করনের দাবীতে কলাপাড়ায় মানববন্ধন ও সমাবেশ।। গলাচিপায় স্কুলের মাঠে গরুর হাট কলাপাড়ায় যৌন হয়রানি প্রতিরোধ কমিটি’র দুইদিন ব্যাপী ওরিয়েন্টেশন কুয়াকাটা পর্যটন কেন্দ্রের দ্বার খুলছে কাল, সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে পর্যটন নির্ভর ব্যবসায়ীরা কলাপাড়ায় গ্রাম পুলিশদের মাঝে বাইসাইকেল বিতরণ । করোনার সংকটময় মুহূর্তে অক্সিজেন সিলিন্ডার নিয়ে পাশে দাঁড়িয়েছে “কলাপাড়া উপজেলা সমিতি,ঢাকা পিরোজপুরে নতুন এসপি হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন সাইদুর রহমান পিরোজপুরে প্রধানমন্ত্রীর মানবিক সহায়তার নগদ অর্থ পেলে ৬৭৫ টি পরিবার
আক্রান্ত

সুস্থ

মৃত্যু

  • জেলা সমূহের তথ্য
ন্যাশনাল কল সেন্টার ৩৩৩ | স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ | আইইডিসিআর ১০৬৫৫ | বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন ০৯৬১১৬৭৭৭৭৭ | সূত্র - আইইডিসিআর | স্পন্সর - একতা হোস্ট
ভারতের হার- ইংল্যান্ডের জয়

ভারতের হার- ইংল্যান্ডের জয়

স্টাফ রিপোর্টারঃ

পুনেতে  অনুষ্ঠিত  ভারত বনাম ইংল্যান্ডের সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে রানের বন্যা বইয়ে গেছে। দুই ইনিংস মিলিয়ে রান হয়েছে ৬৭৩ রান!

প্রথম ইনিংসে ভারতের ছুড়ে দেওয়া ৬ উইকেটে ৩৩৬ রানের লক্ষ্যকেও অনায়াসে টপকে গেছে ইংল্যান্ড।

মাত্র ৪ উইকেটের খরচায় প্রায় ৭ ওভার বাকি থাকতেই ৩৩৭ রান করে ফেলে সফরকারীরা।

ইংল্যান্ডকে এতো রান পাইয়ে দেওয়ার নায়ক দুই ব্যাটসম্যান জনি বেয়ারস্টো ও অলরাউন্ডার স্টোকস।

১ রানের জন্য সেঞ্চুরি হয়নি বেন স্টোকসের। তবে তাণ্ডবপূর্ণ তার ইনিংসটিই ছিল সবচেয়ে বেশি উপভোগ্য। ৪টি বাউন্ডারির আর ১০টি ছক্কার মারে মাত্র ৫২ বলে ৯৯ রান করেন স্টোকস।

অন্যদিকে ১১২ বলে ১২৪ রান করেন বেয়ারস্টো। এছাড়াও ওপেনার জেসন রয়ের ৫২ বলে ৫৫ রানের ইনিংস জয়ের বন্দরে পৌঁছানোর ভিত গড়ে দেয়।

বড় লক্ষ্য তাড়ায় সাড়ে তিনের কম রানরেট নিয়ে প্রথম পাঁচ ওভার কাটায় ইংল্যান্ড। এরপর ব্যাটিং তাণ্ডব শুরু করে ইংল্যান্ড। ১৬ ওভারে ১০০ পার করে সাড়ে ছয়ের কাছাকাছি রানরেটে।

১৭তম ওভারে অবশ্য দুর্ভাগ্যজনক রানআউটের শিকার হন জেসন রয়। বেয়ারস্টোর সঙ্গী হন বেন স্টোকস।

আর দ্বিতীয় উইকেটে এই যুগল ভারতীয় বোলারদের বেদম পিটুনি দেন। ৯৫ বলে ব্যক্তিগত সেঞ্চুরি তুলে নেন বেয়ারস্টো। এ সময় অপরপ্রান্তে ৩৪ বলে ৩৯ রানে অপরাজিত থাকেন স্টোকস।

এরপরের সময়ে চার-ছক্কার পসরা মিলিয়ে বসেন ইংলিশ অলরাউন্ডার। এরপর চোখ ধাঁধানো ইনিংস খেলেন।  বাকি ১৮ বলে ৬০ রান করেন স্টোকস।

তাকে সেঞ্চুরি বঞ্চিত করেন ভুবনেশ্বর। ৯৯ রানের মাথায় ভুবনেশ্বরের ডেলিভারি পুল করতে গিয়ে ব্যাটের কানায় বল লাগিয়ে উইকেটরক্ষক ঋষভ পন্তের হাতে ক্যাচ তুলে দেন স্টোকস।

স্টোকস আউটের সময় জয় পেতে ইংল্যান্ডের দরকার ছিল ৮৮ বলে ৫২ রান।  ৩৭তম ওভারে সেঞ্চুরিয়ান বেয়ারস্টো আর জস বাটলারকে শূন্য রানে ফেরান প্রসিধ কৃষ্ণা।

কিন্তু শুধু উইকেটপ্রাপ্তির আনন্দটাই করা গেছে।

লিয়াম লিভিংস্টোন আর ডেভিড মালানের ৫০ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি ৩৯ বল বাকি থাকতেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেয় ইংল্যান্ড।

এ জয়ের পর তিন ম্যাচের সিরিজ ১-১ সমতায় ফিরল ইংল্যান্ড।

এর প্রথমে ব্যাট করতে নেমে এতদিন ধরে অফফর্মে থাকা লোকেশ রাহুল দুর্দান্ত সেঞ্চুরি হাঁকান।

১১৪ বলে ৭ চার আর ২ ছক্কায় ১০৮ রানের ইনিংস খেলে আউট হন ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান। এটি তার ওয়ানডে ক্যারিয়ারের পঞ্চম ফিফটি। রাহুলের আগে ৭৯ বলে ৬৬ রান করেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি।

সেই আদিল রশিদের স্পিনেই আউট হন টম কোহলি।

কুরানের বলে লোকেশ রাহুল ফিরলে দলের হাল ধরেন উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান ঋষভ পন্ত।

৪০ বলে ৩ চার আর ৭ ছক্কায় পন্ত খেলেন ৭৭ রানের বিধ্বংসী এক ইনিংস খেলেন ঋষভ পন্ত। তার ঝড়ো ইনিংসের পর ৩০০ রান পার করে ভারত।

এরপর ১৬ বলে ১ বাউন্ডারি আর ৪ ছক্কায় হার্দিক পান্ডিয়া ৩৫ রান করলে ৬ উইকেটে ৩৩৬ রান তোলে ভারত।

ইংল্যান্ডের বোলারদের মধ্যে দুটি করে উইকেট পান রিস টপলে আর টম কুরান।

সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন

banner728x90

banner728x90




১৯৬১ সালের স্বেচ্ছামূলক সমাজকল্যাণ প্রতিষ্ঠান অধ্যাদেশ নম্বর ৪৬ এর ৪ (৩) ধারার অধীনে নিবন্ধিত প্রতিষ্ঠান রুরাল ইনহ্যন্সমেন্ট অর্গানাইজেশন( রিও) নিবন্ধন নং -সসেঅদ/ পটুয়া/ ৬৬৩ এর উন্নয়ন প্রকাশনা
কারিগরি সহায়তা: Next Tech