বিজ্ঞপ্তি:
আমাদের ওয়েবসাইটে আপনাকে স্বাগতম
সংবাদ শিরোনাম:
গলাচিপায় পাবলিক পরীক্ষা কেন্দ্রসমূহে প্লাষ্টিকের বেঞ্চ বিতরণ গলাচিপা উপজেলা আওয়ামী লীগের নবগঠিত কমিটির পরিচিতি সভা লেবুখালী সেতুটি শহীদ আলাউদ্দিন সেতু নাম করনের দাবীতে কলাপাড়ায় মানববন্ধন ও সমাবেশ।। গলাচিপায় স্কুলের মাঠে গরুর হাট কলাপাড়ায় যৌন হয়রানি প্রতিরোধ কমিটি’র দুইদিন ব্যাপী ওরিয়েন্টেশন কুয়াকাটা পর্যটন কেন্দ্রের দ্বার খুলছে কাল, সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে পর্যটন নির্ভর ব্যবসায়ীরা কলাপাড়ায় গ্রাম পুলিশদের মাঝে বাইসাইকেল বিতরণ । করোনার সংকটময় মুহূর্তে অক্সিজেন সিলিন্ডার নিয়ে পাশে দাঁড়িয়েছে “কলাপাড়া উপজেলা সমিতি,ঢাকা পিরোজপুরে নতুন এসপি হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন সাইদুর রহমান পিরোজপুরে প্রধানমন্ত্রীর মানবিক সহায়তার নগদ অর্থ পেলে ৬৭৫ টি পরিবার
আক্রান্ত

সুস্থ

মৃত্যু

  • জেলা সমূহের তথ্য
ন্যাশনাল কল সেন্টার ৩৩৩ | স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ | আইইডিসিআর ১০৬৫৫ | বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন ০৯৬১১৬৭৭৭৭৭ | সূত্র - আইইডিসিআর | স্পন্সর - একতা হোস্ট
দিনে কোটি টাকার শুটকি মাছ বিক্রি হয় কুয়াকাটায় ॥

দিনে কোটি টাকার শুটকি মাছ বিক্রি হয় কুয়াকাটায় ॥

মো.সাইদুর রহমান সাইদ, কুয়াকাটা ( পটুয়াখালী)
পটুয়াখালী জেলার কলাপাড়া উপজেলার মহিপুর মৎস বন্দরটি বঙ্গোপসাগরের কোল ঘেষা। বর্ষার মেীসুমে ইলিশ মাছ ক্রয় বিক্রয় করা হলেও এই মেীসুমে চলছে শুটকি মাছ ক্রয় বিক্রয়। বিশ^ব্যাপি চলমান করোনার থাবায় মুখ থুবরে পড়েছিল কুয়াকাটার শুটকী ব্যবসা। এবারে শুটকি ব্যববসায়ীদের শুরুটা হয়েছিল ব্যবসায়িক ক্ষতি আর অনিশ্চয়তার মধ্যে দিয়ে। গত কয়েকমাসে স্থানীয় শুটকী ব্যবসায়ীরা ও শুটকী মার্কেট ব্যবসায়ীরা কোটি কোটি টাকা লোকসান দিয়ে অসহায় হয়ে পড়েছিল। সংরক্ষনাগার ও যথাযথ প্রক্রিয়াজাতকরনের আধুনিক ব্যবস্থা না থাকায় করোনা মহামারিতে অবিক্রিত থাকা শুটকিমাছ নষ্ট হয়েছিল অন্তত ১০০ কোটি টাকার। হতাশার মাঝেও মেীসুমের শেষের দিকে এসে মহিপুর,নিজামপুর,সুধীরপুর ও গোড়াখালে দিনে কোটি টাকার শুটকি মাছ বিক্রি হয়।
স্থানীয় প্রায় ২০০জন ব্যবসায়ী রয়েছে। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, শত শত শ্রমিক জালের উপর বিভিন্ন প্রজাতী মাছ শুকাচ্ছে। কেউ আবার ঝাড়– দিয়ে কুড়িয়ে মাছ একত্র করছে। কেউবা আবার শুটকি মাছ বোস্তা (প্যাকেট) করছে। অতপর তা পাঠিয়ে দিচ্ছে দেশের বিভিন্নপ্রান্তে। পুরুষের পাশাপাশি নারীরাও এ কাজে যুক্ত আছে। কোন কোন যায়গায় ছোট ছোট বাচ্চাদেরও এ কাজে যুক্ত হতে দেখা গেছে। প্রতিদিন সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত চলে বেচা কেনা। এখানে সব শুটকি মাছ পাইকারী বিক্রি করা হয়। প্রাকৃতিকভাবে তৈরি করা হয় বলে এখানকার শুটকি মাছের সুখ্যাতি রয়েছে দেশজুড়ে । লইট্টা, চিংড়ি মাছের চাহিদা বেশি থাকায় এগুলো বেশি বিক্রি হয়। এছাড়াও রুপচাদা,চ্যাপা, ভেটকি, ছুরি, লবস্টার, পাবদা,কোরাল,ভোল,সহনানা প্রজাতীর বিভিন্ন সামুদ্রিক মাছ বিক্রি করা হয় এখানে।
স্থানীয় বাজারেও যায় এ শুটকি মাছ । বিশেষ করে পর্যটন নগরী কুয়াকাটার শুটকি মার্কেটের বিভিন্ন দোকানীরা বেশি ক্রয় করে। ট্রাকে করে চলে যায় সৈয়দপুর, চট্টগ্রাম ,ঢাকাসহ দেশের বিভিন্নপ্রান্তে। স্থানী শুটকি ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন , ঢাকা কিংবা চট্টগ্রাম থেকে এজেন্সির মাধ্যমে চলে যায় দেশের গন্ডি পেরিয়ে বিদেশে।
নিজামপুরের শুটকি ব্যবসায়ী জসিম উদ্দিন (৪০) জানান, মেীসুম শুরুর দিকে আমার অনেক লোকসান হইছে। বর্তমানে আমি কিছুটা লাভের মুখে আছি। প্রতিদিন আমি ২লক্ষ টাকার শুটকি মাছ বিভিন্ন এলাকায় পাঠাই। গোড়াখালের শুটকি ব্যবসায়ী জহির নাজির বলেন, এবারে করোনার কারনে বেশিরভাগ শুটকি বিক্রি না হওয়ায় আমার ২০ লক্ষ টাকা লচ হয়েছিল। তবে বর্তমানে আমি সপ্তায় ৭ লক্ষ টাকার মাছ সৈয়দপুরে পাঠাই।
কুয়াকাটার মা শুটকী বাজার দোকানের ব্যবসায়ী সোহেল মাহমুদ জানান, আমাদের এই মার্কেটের ব্যবসায়ীরা নিজামপুর ও গোড়াখাল থেকেই বেশিরভাগ শুটকি ক্রয় করে আনি।এখন বেচাকিনা ভালোই হয় ফলে আমরা আস্তে আস্তে লোকসান থেকে বেরিয়ে আসতে শুরু করছি।
উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মো. জহিরুন্নবী জানান, নিরাপদ ও মানসম্পন্ন শুটকি উৎপাদনের জন্য কুয়াকাটার ব্যাপক সুনাম রয়েছে। তবে এ বছরের শুরুতে লোকসানের মুখে ছিল শুটকি ব্যবসায়ীরা। এখন একটু ঘুরে দাড়াতে শুরু করছে মাত্র । আমরা চেষ্টা করছি যাতে যাতে তারা সহজ শর্তে ঋণ পায়।

সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন

banner728x90

banner728x90




১৯৬১ সালের স্বেচ্ছামূলক সমাজকল্যাণ প্রতিষ্ঠান অধ্যাদেশ নম্বর ৪৬ এর ৪ (৩) ধারার অধীনে নিবন্ধিত প্রতিষ্ঠান রুরাল ইনহ্যন্সমেন্ট অর্গানাইজেশন( রিও) নিবন্ধন নং -সসেঅদ/ পটুয়া/ ৬৬৩ এর উন্নয়ন প্রকাশনা
কারিগরি সহায়তা: Next Tech